বুধবার, নভেম্বর ২০, ২০১৯

​' বাজিমাত ‘কেশরী’

' বাজিমাত ‘কেশরী’ ।

'গোল্ড', 'রুস্তম'-এর পর ফের আরও এক ইতিহাস নির্ভর ছায়াছবি নিয়ে ফিরছেন অক্ষয় কুমার। ১৮৯৭ সালে 'সারগড়ীর যুদ্ধ' -এর প্রেক্ষাপটে তৈরি এই সিনেমার নাম 'কেশরী'। অক্ষয় ও করণ জোহরের স্বপ্নের এই প্রজেক্টে 'অক্ষয় ও করণ জোহরের স্বপ্নের এই প্রজেক্টে 'কেশরী'তে আক্কিকে দেখা যাবে হাবিলদর ঈশ্বর সিং-এর চরিত্রে। এনিয়ে তৃতীয় বার কোনও শিখ চরিত্র দেখা যাবে বলিউডের খিলাড়িকে। এর আগে 'সিং ইজ কিং' এবং 'সিং ইজ ব্লিং' ফিল্ম।

করণ জোহরের ধর্মা প্রোডাকশনের সঙ্গে এই ফিল্মের যৌথ প্রযোজনা করছেন অক্ষয় নিজেও। সিনেমাটি পরিচালনা করছেন অনুরাগ সিং।

ফিল্ম 'কেশরী'র প্রেক্ষাপট ১৮৯৭ সালে ১২ সেপ্টেম্বর ঘটে যাওয়া 'সারগড়ী'র যুদ্ধ'। যে যুদ্ধে আফগানিস্তান ওরাকজাই উপজাতির ১ হাজার সেনার সঙ্গে লড়াই করেছিল ব্রিটিশ ভারতীয় সেনাবাহিনীর মাত্র ২১ জন শিখ। যার নেতৃত্ব দিয়েছিলেন হাবিলদর ঈশ্বর সিং। যুদ্ধটি হয়েছিল তৎকালীন খাইবার পাখতুনখাওয়া প্রদেশের তিরাহ উপত্যাকায় যেটি বর্তামানে পাকিস্তানের নর্থ-ওয়েস্ট ফ্রন্টিয়ার প্রভিন্সের অন্তর্গত।ব্রিটিশ শাসকের আওতায় তখন ভারতীয় সেনা। আর সেই সেনাতেই নিযুক্ত ছিলেন শিখ রেজমেন্টের ৩৬ জন সাহসী সেনা জওয়ান। ঘটনাস্থল ছিল বর্তমান পাকিস্তানের খাইবার পাশতুনখোয়া এলাকা। যার তৎকালীন নাম ছিল উত্তর পশ্চিম ফ্রন্টায়ার প্রভিন্স। সেখানের এক সেনা পোস্টে ২১ জন শিখ জওয়ানকে বাইরে থেকে ঘিরে ধরে এক হাজার জনের আফগান উপজাতির দল। শুরু হয় অসম যুদ্ধ।

যেখানে ঈশ্বর সিংয়ের ভূমিকায় দেখা যাবে অক্ষয় কুমারকে। ছবিতে অক্ষয়ের স্ত্রীর ভূমিকায় দেখা যাবে পরিণীতি চোপড়াকে।বর্তমান পাকিস্তানের সারাগারহিতে সেই যুদ্ধ হয়েছিল বলেই এই রক্তাক্ত অধ্যায়ের নাম সারাগারহি। সারাগারহির সেই যুদ্ধের খতিয়ানই তুলে ধরছে অক্ষয় কুমার অভিনীত ছবি 'কেশরী'। পরিণীতি , অক্ষয় অভিনীত এই ছবি পরিচালনা করেছেন অনুরাগ সিং।