বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ১৪, ২০১৯

​বুদ্ধপূর্ণিমার লগ্নে কেদারনাথে ধ্যানস্থ নরেন্দ্র মোদী


দেবাদিদেব মহাদেবের শরণে গেলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। আকাশে তখন পূর্ণিমার চাঁদ । বৌদ্ধ মঠ গুলিতে ধ্বনিত হচ্ছে , ‘বুদ্ধং স্মরণং গচ্ছামি’ , ভারতের প্রধানমন্ত্রী কেদারনাথে রুদ্র যজ্ঞ সমাধান করে গুফায় ধ্যানমগ্ন । জল্পনা তো ছিল-ই , আজ দিনভর ক্যামেরা ধাওয়া করেছে প্রধানমন্ত্রীর গৈরিক ক্রিয়া কলাপের প্রতি । যোগী বেশে গৈরিক বস্ত্র পরিধান করে মোদী কেদারনাথের গুহায় ধ্যানস্থ ।

প্রচার-যুদ্ধ শেষ করেই কেদারনাথের মতো দুর্গম তীর্থক্ষেত্রে গিয়ে তাঁর উপাসনায় বসা, বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল।
২০১৯ লোকসভা নির্বাচনের প্রচার শেষ করেই মোদী উত্তরাখণ্ড সফরে রওনা দিয়েছেন। প্রথমেই তিনি যান কেদারনাথ মন্দিরে। রবিবার তাঁর যাওয়ার কথা বদ্রীনাথের শরণে। তাঁর সফরসঙ্গী হয়েছেন উত্তরাখণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী ত্রিবেন্দ্র সিং রাওয়াত।প্রধানমন্ত্রীর এই সফরের কারণ হিসেবে ব্যাখ্যা করা হয়েছে, কেদারনাথ-সহ বেশ কয়েকটি তীর্থক্ষেত্রের আধুনিকায়নের কাজ খতিয়ে দেখতেই তাঁর যাত্রা। তিনি পর্যটন শিল্পের উপর জোর দিতেই ভোটের কাজ মিটিয়ে গিয়েছেন কেদারনাথে। সেখানে কৃত্রিম গুহা নির্মাণের কাজ চলছে। শনিবার সারাদিন প্রধানমন্ত্রী সেখানে পরিদর্শন করেন। আধুনিকীকরণ কাজ খতিয়ে দেখেন।শুধু কাজ খতিয়ে দেখাই নয়, তিনি যে পুজো-পাঠেও মন দিয়েছিলেন, সেই ছবিও দেখা গিয়েছে এদিন। কেদারনাথে গিয়ে গুহা ভিতরে ধ্যানে মগ্ন ছিলেন মোদী। তারপর মনপ্রাণ দিয়ে তিনি পুজো দিয়েছেন। কেদারনাথের মন্দিরে ভগবান শিবের কাছে প্রার্থনা করেছেন। চারধাম তাঁর প্রিয় জায়গা । এর আগেও বহুবার চারধাম যাত্রা করেছেন তিনি । নির্বাচনের মুখে বিরোধী দলগুলি যখন সম্ভাব্য সংখ্যা নিয়ে জল্পনায় বিভোর তখন

তাঁর এই গৈরিক আচরণের চর্চা দেশ বিদেশের রাজনৈতিক মহলে কৌতুল সৃষ্টি করেছে ।