মঙ্গলবার, নভেম্বর ১৯, ২০১৯

​পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ভারতের দুর্দান্ত জয়

অন্যদেশ ডেস্ক, ১৭ জুন সোমবার

ভারত- পাকিস্তানের ক্রিকেট যুদ্ধে চরম উত্তেজনার পারদ খেলাটিকে অন্য মাত্রায় নিয়ে যায় । দিন কয়েক থেকেই উত্তেজনা টান টান । জুয়ারিরা বাজার নেমেছে অনেকদিন থেকেই । সব হিসেব ঠিকঠাক মিলিয়ে ভারত জিতলো ৮৯ রানে । বিশ্বকাপে ভারত এখন অবধি অপরাজিত ।

৩৩৬ করে পাকিদের সামনে বিরাট কোহলির দল চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়েছে । এবারও নিজেদের ভাগ্য বদলাতে পারল না পাকিস্তান ৷ বিশ্বকাপের মঞ্চে ৬- ৬ -র পর ৭-৭ -র রেকর্ড করে ফেলল ভারতীয় দল ৷ ৯০ -র দশক থেকে যে সোনালি ফলের শুরু ম্যাঞ্চেস্টারেও সেই ধারাই বজায় রাখল তারা ৷ শিখর ধাওয়ানের পরিবর্তে ওপেন করতে নামেন কেএল রাহুল। রাহুলকে সঙ্গে নিয়ে রোহিত শর্মা দুর্দান্ত শুরু এনে দেন ভারতকে। রোহিত শর্মা এই বিশ্বকাপের দ্বিতীয় এবং একদিনের ক্রিকেটের ২৪ তম শতরান সেরে ফেললেন। এদিন মাত্র ১১৩ বলে ১৪০ রান করে আউট হন তিনি।

বিশ্বকাপে এখনও পর্যন্ত ভারতকে হারাতে পারেনি পাকিস্তান। । ম্যানচেস্টারেও ইতিহাসের পুনরাবৃত্তিই হল ৷ বিরাট কোহলির দল চির প্রতিদ্বন্দ্বীদের হারাতে কোনও ভুল করলেন না ৷ ৩৩৬ এর জবাবে ৪০ অভারে পাকিস্থান করলো ২১২ /৬ । ৮৯ রানে ভারত জিতলো ডাকওয়ার্থ-লুইস নিয়মে । পাকিস্তানকে ৫ ওভারে তুলতে হতো ১৩৬ রান যা একপ্রকার অসম্ভব ছিল । ব্যাটে বলে জিতলো ভারত ।

সেই সঙ্গে ৭৭ রান হাঁকিয়ে বিরাট কোহলি গড়েন বিশ্ব রেকর্ড । ১১ হাজায়ের শচীনকে পিছনে ফেলে এগিয়ে গেলেন । ২৭৬ ইনিংস খেলে এগারো হাজার রানের ক্লাবে ঢুকে পড়েছিলেন ক্রিকেট ঈশ্বর সচিন তেন্ডুলকর। সরফরাজের পাকিস্তানের বিরুদ্ধে এদিন ৭৭ রান করে, ২২২তম ইনিংসেই রেকর্ড বিরাটের ।

২০১৯ বিশ্বকাপে ছিটকে গেলেন ভারতীয় পেসার ভুবনেশ্বর কুমার। হ্যামস্ট্রিংয়ে চোট পেয়ে ২.৪ ওভারে উঠে যান ভুবনেশ্বর। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন তিনি আর বিশ্বকাপে খেলতে পারবেন না। ভারতের বড় ধাক্কা ভুবনেশ্বর কুমারের ছিটকে যাওয়া। ভুবনেশ্বর দক্ষিণ আফ্রিকা ও অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ভারতীয় বোলিংকে ভরসা জুগিয়েছিলেন। পাকিস্তানের বিপক্ষেও ভালো শুরু করেন তিনি। ২.৪ ওভারে মাত্র ৮ রান দেন। তারপরই হ্যামস্ট্রিংয়ে চোট পেয়ে মাঠ ছাড়েন ভুবনেশ্বর। তার অসম্পূর্ণ ওভার সম্পূর্ণ করতে এসে ভারতকে প্রথম সাফল্য এনে দেন বিজয় শংকর।তিনি তার প্রথম বলেই ইমামুল হককে ফিরিয়ে দেন প্যাভিলিয়নে। তবে ভুবনেশ্বরের এইভাবে মাঠ ছাড়া ভারতের কাছে বিরাট ঝটকা বলেই মনে করেন ক্রিকেট বিশেষজ্ঞরা। যদিও এদিনের ম্যাচে ভুবনেশ্বরের অভাব ঢেকে দেন বুমরা, পান্ডিয়া, কুলদীপ, চোহানরা। এদিন বিজয় শঙ্করও বল হাতে পাকিস্তানের বিপক্ষে বড় ভূমিকা নেন। শিখর ধাওয়ানের পরিবর্তে বিজয় শংকরকে প্রথম একাদশে রেখেছিল ভারতের টিম ম্যানেজম্যান্ট। বিশ্বকাপে ক্যারিয়ারে প্রথম ম্যাচের প্রথম বলেই সাফল্য তার ক্রিকেট জীবনে অন্য মাত্রা এনে দিল। আবার পাকিস্তানের বিরুদ্ধে এই সাফল্য পেল বিজয় শঙ্কর।