শুক্রবার, নভেম্বর ২২, ২০১৯

রানী ভিক্টোরিয়ার শরীর স্পর্শ করে প্রোটোকল ভাঙলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট

তিন দিনের ব্রিটেন সফরে এসে একের পর এক বিতর্কে জড়িয়ে পড়লেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। প্রথমে লন্ডনের মেয়র সাদিক খানকে আক্রমণ করে বিতর্কিত মন্তব্য। এর পর খোদ রানি ভিক্টোরিয়ার শরীর স্পর্শ করে প্রোটোকল ভাঙার অভিযোগ উঠল মার্কিন প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের ভূমিকার ভূয়শী প্রশংসা করে বিবৃতি দেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। বিবৃতির শেষে উঠে দাঁড়ানোর সময় ৯৩ বছর বয়সী রানির পিঠে হাত দিয়ে স্পর্শ করেন তিনি। রয়্যাল পরিবারের আভিজাত্যের বিষয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট কতটা ওয়াকিবহাল তা নিয়ে প্রশ্ন ওঠে।
উল্লেখ্য, অলিখিত প্রচলন রয়েছে, স্পর্শ করা যায় না রানি ভিক্টোরিয়াকে। তবে, রয়্যাল পরিবারের সঙ্গে কেমন আচরণ করা উচিত, তার লিখিত কোনো উল্লেখ নেই। এমনকি রয়্যাল পরিবারের ওয়েবসাইটেও এ বিষয়ে কিছু বলা নেই।
কিন্তু বিশেষজ্ঞরা বলছেন, বেশ কিছু অলিখিত নিয়ম রয়্যাল পরিবারে মেনে আসা হচ্ছে, যা আমন্ত্রিত অতিথিরাও ওয়াকিবহাল থাকেন। সে ক্ষেত্রে বরাবরই মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বরাবরই উলটো পথে হেঁটেছেন।

এর আগে রানির সঙ্গে সাক্ষাতের সময়ও বিতর্ক তৈরি হয়েছিল। এক সঙ্গে হাঁটার সময় রানিকে ছাড়িয়ে কয়েক কদম এগিয়ে যান মার্কিন প্রেসিডেন্ট। যা রয়্যাল পরিবারে অভব্য আচরণ বলে মনে করা হয়। তবে, ট্রাম্প এ সব বিষয়ে সব সময় ডোন্ট কেয়ার মনোভাব। না হলে এক বছর আগে রানিকে দেওয়া উপহার বেমালুম ভুলে যান! ভাগ্যিস গিন্নি মেলানিয়া মনে করিয়ে দেন, তিনিই রানিকে একটি ঘোড়ার মূর্তি উপহার দিয়েছিলেন। সে যাত্রায় রানির মান বাঁচিয়ে দেন মেলানিয়া।