বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ১৪, ২০১৯

ভারতের তীব্র সমালোচনা ট্রাম্পের

ফের ভারতের বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। চাঁচাছোলা ভাষায় তিনি বলেন, ‘দূষণ ও পরিচ্ছন্নতার বিন্দুমাত্র বোধ নেই ভারতের।’ বায়ুদূষণ নিয়ে ‘ওয়ার্ল্ড হেলথ অর্গানাইজেশন’-এর প্রকাশিত একটি রিপোর্টের প্রেক্ষাপটে এই মন্তব্য করেন ট্রাম্প।

রাশিয়া থেকে এস-৪০০ মিসাইল ডিফেন্স সিস্টেম কেনা নিয়ে নয়াদিল্লির সঙ্গে বিবাদ বাড়ছে ওয়াশিংটনের। কয়েক দিন আগেই বাণিজ্যের ক্ষেত্রে ভারতকে দেয়া বিশেষ মর্যাদাও প্রত্যাহার করে নিয়েছে আমেরিকা। এহেন পরিস্থিতিতে ফের দূষণ ও পরিচ্ছন্নতা নিয়ে ভারতকে আক্রমণ করেছেন ট্রাম্প। সদ্য বায়ুদূষণ নিয়ে একটি রিপোর্ট প্রকাশ করেছে ‘ওয়ার্ল্ড হেলথ অর্গানাইজেশন’ (ডব্লিউএইচও)। সেখানে বলা হয়েছে, আমেরিকার তুলনায় ভারত, রাশিয়া ও চীনে বাতাসে দূষণের পরিমাণ অনেক বেশি। তারপরই এই তিন দেশকে একহাত নিয়েছেন ট্রাম্প। বুধবার তিনি সাফ বলেন, “এরা কোনো দিন প্রকৃতির প্রতি নিজেদের দায়িত্ব পালন করেনি। ভারত, রাশিয়া ও চীনের পানি পরিষ্কার নয়, বতাস দূষিত৷” একই সঙ্গে ব্রিটিশ যুবরাজ চার্লসের ভূয়সী প্রশংসা করেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। জলবায়ু দূষণ রুখতে ব্রিটিশ যুবরাজের পদক্ষেপ ও নিষ্ঠা দেখার মতো বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালের জুন মাসে প্যারিস জলবায়ু চুক্তি থেকে সরে দাঁড়ায় আমেরিকা। ওই সিদ্ধান্তের কথা ঘোষণা করেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। চুক্তি থেকে সরে যাওয়ার কারণ ব্যাখ্যা করতে গিয়ে ট্রাম্প জানিয়েছিলেন, চুক্তির শর্তে ভারত ও চীনের প্রতি পক্ষপাতিত্ব করা হয়েছে। এই চুক্তি আমেরিকার পক্ষে প্রতিকূল। সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার আমলে এই চুক্তি নিয়ে সহমত হয়েছিল ১৯০টিরও বেশি দেশ। ভারতকে দূষণ নিয়ে পাঠ দিলেও পরিসংখ্যান বলেছে আমেরিকার বাতাসে ২০১৮ সালে কার্বন ডাই-অক্সাইডের পরিমাণ বেড়েছে ৩.৪ শতাংশ। বিশ্লেষকদের মতে, পরিবেশের চেয়েও রাজনৈতিক কারণেই এই মন্তব্য করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট।