বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ১৪, ২০১৯

ফনি ধেয়ে আসছে তীব্র গতিতে । সংকটে উড়িষ্যা কেরালা

অন্যদেশ ডেক্স , ৩০ এপ্রিল বুধবার ;


বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড় ‘ফনি’ ইতিমধ্যে ‘অতি প্রবল’ আকার ধারণ করেছে। যতই সময় যাচ্ছে ততই শক্তি সঞ্চয় করছে এটি। মাত্র ২৪ ঘণ্টায় এই ঝড় বাতাসের গতি বাড়িয়েছে ৮৮ কিলোমিটার।ঙ্গলবার সন্ধ্যা ৬টায় এর বাতাসের গতি ছিল ১৭০ কিলোমিটার। বড় হয়েছে এর আকার। অতি তীব্র বেগে এগিয়ে আসছে উপকূলের দিকে। শেষ পর্যন্ত এটি হ্যারিকেনের তীব্রতাসম্পন্ন ঘূর্ণিঝড়ে রূপান্তরের আশঙ্কা রয়েছে। উপকূল গুলিতে সংকেত বার্তা দেওয়া হয়েছে । উড়িষ্যার উপকূলবর্তী অঞ্চল থেকে মৎস শিকারী ও পর্যটকদের সরিয়ে দেওয়া হয়েছে । ক্রমেই বঙ্গোপসাগরের মাথায় ফুঁসছে সাইক্লোন 'ফনি'। পশ্চিমবঙ্গ সহ একাধিক রাজ্যে ইতিমধ্যেই এই সাইক্লোন নিয়ে জারি করা হয়েছে সতর্কতা। বঙ্গোপসাগর সংলগ্ন উপকূলবর্তী রাজ্যগুলিতে এই ঝড় আছড়ে পড়ার আশঙ্কায় ইতিমধ্য়েই সতর্কতা জারি হয়েছে ভারতীয়-নৌসেনায়। সাইক্লোন 'ফনি' নিয়ে রীতিমত তৎপর নৌসেনা। বিশাখাপত্তনম ও চেন্নাইয়ের কাছে মোতায়েন করা রয়েছে নৌসেনার যুদ্ধ জাহাজ। যেকোনও পরিস্থিতিতে যাতে যুদ্ধকালীন তৎপরতায় যেন তা কার্যকরী ব্যবস্থা নিতে পারে।

আবহাওয়া দফতরের পর্যবেক্ষণ অনুযায়ী, ঘূর্ণিঝড় ফনি এগোচ্ছে ওড়িশা উপকূলের দিকে। আবহাওয়া দফতরের অনুমান অনুযায়ী, শুক্রবার সকাল ১১.৩০-এ পুরী ও পারাদ্বীপের মধ্যবর্তী জায়গায় তা আছড়ে পড়তে পারে বলে অনুমান করা হচ্ছে। এরপর তা ওড়িশা উপকূল ধরে ঢুকে যাবে ঘূর্ণিঝড় ফনি উত্তর পশ্চিম দিকে যাওয়ার পরিবর্তে উত্তর ও উত্তর পূর্বের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে।ঘূর্ণিঝড় ফনি এগোচ্ছে উত্তর ওড়িশা ও পশ্চিমবঙ্গের দিকে। ৩ থেকে ৪ মে-র মধ্যে তা আছড়ে পড়তে পারে বলে জানানো হয়েছে। ১ মে রাতে ঘূর্ণিঝড় অতি প্রবল ঘূর্ণি ঝড়ের রূপ নিতে পারে বলে জানানো হয়েছে। এর প্রভাবে দক্ষিণ ওড়িশার উপকূলের জেলাগুলিতে ভারী বৃষ্টির সতর্কতা জারি করা হয়েছে।ওড়িশা ও সংলগ্ন পশ্চিমবঙ্গে শনিবার বিকেলে প্রবল বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে। মৌসম ভবনের পূর্বাভাসে আশঙ্কার কালো মেঘ পশ্চিম বঙ্গেও । বৃহস্পতিবার থেকে রাজ্যে আবহাওয়ার পরিবর্তন ঘটতে পারে।

মঙ্গলবারের মধ্যেই 'ফনি' ফুঁসে উঠে আছড়ে পড়তে চলেছে চেন্নাই, ওড়িশার বিভিন্ন অংশে। আগামী ১২ ঘণ্টায় এই সাইক্লোন আরও ঘনীভূত হতে চলেছে। প্রধান মন্ত্রীর অফিস থেকেও আসন্ন ঘূর্ণি ঝড় নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়েছে ।

ছবি -- গুগল