রবিবার, নভেম্বর ১৭, ২০১৯

টিপু সুলতানের যুগল কবিতা

চোখে নেমে যাচ্ছে শোক


হাতের ওপিঠে ঠেস রাখা দেয়াল

ঘুমন্ত জানালার থাইগ্লাস সরিয়ে

খুন চালানো প্রাকটিস দেখতে থাকলাম।

কেবল ক্যারাম বোডের মতো

টুকরো টুকরো সকল অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ ছত্রছায়া

এ্যারারুড ময়দায় ছড়ানো-নৈশব্দ

আর কোনো অবশিষ্ট নেই-আনুষ্ঠানিক

বিউগল বাজাচ্ছে গাছপাতা-বৃক্ষপুরুষ

এভাবে-কখনো সখনো রাত-দিন

চোখে নেমে যাচ্ছে শোক,অনুতাপ-

জীবন্ত দু শালিক উড়ে যায়-অচিন্ত্য আকাশ





বুকের ভেতর যন্ত্রণার আস্ফালন


এই তো সেদিন বালুর কাছে

তার পায়ের চিহ্ন অমনি আছে

যতদূর হেঁটে গেছে

খানিক পরে কিছুক্ষণ

থেমে থেমে পথের মতো বেঁকে-

স্নিগ্ধ ছোঁয়া নরম চোয়াল রেখে

ডাহুক পাখির পোষ না মানা

আবার দেখা অজান্ত দীর্ঘশ্বাসে-

ঘাসের ওপর সরোদ নাচে

নেশার জীবন মৃদু হাসে

মুগ্ধ গলায় বলতে গিয়ে

চোখের ভেতর সংকোচ বাঁধে

একজোড়া সুখ বেদনার বন্ধন...

ঝরাপাতায় অস্ত ফেরে

লুটিয়ে পড়ে সরু বৈকাল-

বুকের ভেতর যন্ত্রণার আস্ফালন!