বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ১৪, ২০১৯

কংগ্রেস তথা ইউপিএকে এগিয়ে রেখেছে আন্তর্তাজাতিক চার সংস্থার সমীক্ষা রিপোর্ট

ভোট এসে গিয়েছে। চরম ব্যস্ততা সমীক্ষক সংস্থাগুলির। একের পর এক সমীক্ষা রিপোর্ট সামনে আসছে ২০১৯-এর লোকসভা ভোট নিয়ে। কার পাল্লা ভারী, কে আসতে পারে ক্ষমতায়, কত আসন পেতে পারে মোদীর নেতৃত্বাধীন বিজেপি তথা এনডিএ বা রাহুল গান্ধীর নেতৃত্বাধীন কংগ্রেস তথা ইউপিএ, তার আভাস দিল আন্তর্জাতিক সমীক্ষক সংস্থা।

আন্তর্জাতিক সমীক্ষায় আভাস

আন্তর্জাতিক সমীক্ষা বিজেপি তথা এনডিএ-র পক্ষে বয়ে আনছে দুঃসংবাদ। দেশের বিভিন্ন সমীক্ষা যখন এগিয়ে রাখছে বিজেপি তথা এনডিএকে, তখন একেবারে উল্টোপথে হেঁটে কংগ্রেস তথা ইউপিএকে এগিয়ে রাখল এই সমীক্ষা।

ত্রিশঙ্কু লোকসভার ইঙ্গিত

এনডিএ বা ইউপিএ- কেউই এবার সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাবে না, সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাবে না ফেডারেল ফ্রন্টও। এবার ত্রিশঙ্কু লোকসভা হতে চলেছে ভারতে, এমনটাই ইঙ্গিত মিলেছে আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলির নির্বাচনী সমীক্ষার ফলে। ম্যাজিক ফিগার থেকে দূরে রয়েছে যাবে ইউপিএ। এনডিও থাকবে বেশ পিছনে।


কে কত আসন

এই সমীক্ষা রিপোর্ট অনুযায়ী ইউপিএ পেতে পারে ২২১টি আসন। সেখানে এনডিএ পাবে মাত্র ১৭২টি আসন। অর্থাৎ ইউপিএ এবার ৪৯টি আসন বেশি পেতে পারে এনডিএ-র থেকে। সমীক্ষায় প্রকাশ অন্যান্যরা পেতে পারে ১৫৪টি আসন। ফলে কিং-মেকার হতে পারে আঞ্চলিক দলগুলি।


এককভাবে কে বৃহত্তম

আন্তর্জাতিক সংস্থার সমীক্ষায় ২২১টির মধ্যে কংগ্রেস একাই পাবে ১৪১টি আসন। কংগ্রেসের সহযোগী দলগুলির দখলে যেতে পারে ৮০টি আসন। আর ১৭২টির মধ্যে বিজেপি এককভাবে পাবে ১৪১টি। আর বিজেপির সহযোগী দলগুলি পেতে পারে ৩১টি আসন। এই সমীক্ষা সত্য হলে কংগ্রেস ও বিজেপি পাবে সমান আসন। অর্থাৎ উভয়েই বৃহত্তম দল।

২০১৪-র নির্বাচনী ফল

গতবার অর্থাৎ ২০১৪ লোকসভা নির্বাচনে এনডিএ পেয়েছিল ৩৩৬টি আসন। ইউপিএ পেয়েছিল ৬০টি আসন। বিজেপি এককভাবে পেয়েছিল ২৮২টি আসন। কংগ্রেস জিতেছিল মাত্র ৪৪ আসনে। আন্তর্জাতিক সমীক্ষা রিপোর্ট মিলে গেলে কংগ্রেসের পুনরুত্থান হবে দেশে। বিজেপি খাবে মোক্ষম ধাক্কা।